বরিশাল

ধানসিঁড়ি নদী

চমৎকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরা ধানসিঁড়ি নদীর দু ধারে আছে ধানক্ষেত। রূপসী বাংলার বিখ্যাত কবি জীবননান্দ দাসের চাচা এই নদীতীরের কাছেই বাস করতেন। কবি জীবননান্দ দাস এই নদীর সৌন্দর্যে এতটাই বিমোহিত হয়েছিলেন যে তাঁর সবচেয়ে জনপ্রিয় কবিতা রচনার পেছনে এই নদীটি ছিল প্রধান অনুপ্রেরনা।

কিভাবে যাবেনঃ

ঢাকা থেকে ঝালকাঠি কিভাবে যাবেন ইতিমধ্যেই উল্লেখ করা হয়েছে। ঝালকাঠিতে পৌঁছে আপনাকে সড়কপথে রাজাপুর এবং সাটুরিয়ার উপর দিয়ে ধানসিঁড়ি নদীতে পৌছাতে হবে।

 

কিভাবে পৌঁছাবেন: ঝালকাঠি জেলা

বাংলাদেশের দক্ষিন পশ্চিমাঞ্চলে অবস্থিত বরিশাল বিভাগের একটি জেলা হল ঝালকাঠি। ঝালকাঠির উত্তরে বরিশাল জেলা, দক্ষিনে বরগুনা জেলা, পূর্বে বরিশাল ও পটুয়াখালী জেলা এবং পশ্চিমে পিরোজপুর জেলা অবস্থিত।

ঢাকা ও ঝালকাঠির মধ্য চলাচলকারী বাসগুলোর মধ্যে আছেঃ

১। সুগন্ধা পরিবহন-ঝালকাঠি থেকে ছাড়ার সময়: সকাল ৭:৪৫ মিনিট, সকাল ৮:৪৫ মিনিট, সকাল ৯:৪৫ মিনিট এবং সকাল ১০:৩০ মিনিট। ফোনঃ-০১৭৩৯০২৫৮১৫ (ঝালকাঠি)

২। দ্রুতি পরিবহন- ঝালকাঠি থেকে ছাড়ার সময়: সকাল ৮টা, সকাল ৮:৩০ মিনিট, দুপুর ৩টা, রাত ৯টা, এবং রাত ১০টা,
ফোনঃ ০১৭১২৬১৭৪৩৫, ০১৬৭৪০০৫৭৯৯ (ঝালকাঠি)

৩। হানিফ পরিবহন – ঝালকাঠি থেকে ছাড়ার সময়: – সকাল ৭:৩০ মিনিট, সকাল ৮:৪৫ মিনিট, সকাল ১০টা, সকাল ১১:৪৫ মিনিট, এবং রাত ১০টা, ফোনঃ -০১৭১২১৫৪১১৫, ০১৭১৬৪২২৫৫০ (ঝালকাঠি), ০১৭১৩০১৪৯৫৭২, ০২-৮০৫৬৩৬৬ (ঢাকা)

 

কোথায় থাকবেন”

ঝালকাঠিতে থাকার জন্য বেশকিছু হোটেল রয়েছে। আপনার সুবিধার্থে কয়েকটি হোটেল সম্পর্কে নিম্নে তথ্য প্রদান করা হলঃ

  1. ধানসিঁড়ি রেস্ট হাউজ- কালীবাড়ি রোড, ঝালকাঠি, ফোনঃ ০৪৯৮-৬২২১২

    2. হালিমা বোর্ডিং-এমডি আজিজ সদর রোড, চৌমাথা, ঝালকাঠি, ফোনঃ ০৪৯৮-৬২২৮৬

    3. আরাফাত বোর্ডিং, ফোনঃ ০৪৯৮-৬৩৫৮৯

 

কি করবেনঃ

১। বিখ্যাত কবি জীবননান্দ দাসের চাচার বাড়ি দেখে আসতে পারেন।

২। আপনি ধানসিঁড়ি নদীর চারপাশের ছবি তুলতে পারেন।

৩। নদীর চারপাশে ঘুরে বেড়িয়ে, সেইসাথে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করে চমৎকার সময় অতিবাহিত করে সব ক্লান্তি দূর করে সতেজ হতে পারেন।

 

খাবার সুবিধাঃ

ঝালকাঠিতেই খাওয়ার ব্যাবস্থা দেখে নিন।

 

ভ্রমণ টিপসঃ

ঝালকাঠি শহরের অনেক দোকানেই পর্যটকদের কাছে দেশে তৈরী পণ্য বিক্রি করা হয়। এছাড়া স্থানীয় মার্কেটে গেলে আপনি দেশে তৈরী বিভিন্ন পণ্য যেমন হস্তশিল্প সামগ্রী, হাতে বোনা পোশাক, বিছানার চাদর ইত্যাদি কিনতে পারবেন।

 

0.00 avg. rating (0% score) - 0 votes
Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

Close
Close